নারী নির্যাতনস্লাইড

অপহরণের পর ভারতে পাচার, ১৫ মাস পর দেশে ফিরল সেই সোহাগী

ওমেনআই ডেস্ক : লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার পাইকারটারী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী সোহাগী খাতুন ১৫ মাস পর ভারত থেকে দেশে ফিরেছেন। সোহাগী খাতুন জেলার হাতীবান্ধা উপজেলার পুর্ব সারডুবী গ্রামের সহিদুল ইসলাম ভুট্টুর মেয়ে। ২০১৮ সালের ১৪ অক্টোবর তাকে অপহরণ করে ভারতে পাচার করা হয়।

বাংলাদেশ ও ভারতের রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে কুটনৈতিক আলোচনার পর আজ বৃহস্পতিবার বিকালে ভারতীয় পুলিশ লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী স্থল বন্দর দিয়ে বাংলাদেশি পুলিশের কাছে তাকে হস্তান্তর করেন।

হাতীবান্ধা উপজেলার বড়খাতা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আবু হেনা মোস্তফা জামাল সোহেল বলেন, স্কুল ছাত্রী সোহাগী খাতুনকে ২০১৮ সালের ১৪ অক্টোবর স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পথে অপহরণ করেন ফকিরপাড়া গ্রামের গিরিনের ছেলে প্রদীপসহ কয়েকজন। তাকে অপহরণের পর ভারতে পাচার করা হয়।
২০১৯ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর ভারতের শিলিগুড়ির পায়েল সিনেমা হলের কাছ থেকে তাকে উদ্ধার করে ভারতীয় পুলিশ। এরপর তাকে ফেরত আনতে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে কুটনৈতিক পর্যায়ে দীর্ঘ আলোচনার পর আজ বৃহস্পতিবার বিকালে ভারতীয় পুলিশ বুড়িমারী স্থল বন্দর দিয়ে বাংলাদেশী পুলিশের কাছে তাকে হস্তান্তর করেন। বাংলাদেশি বুড়িমারী ইমিগ্রেশন পুলিশ সোহাগী খাতুনকে পাটগ্রাম থানায় হস্থাস্তর করেন। সন্ধ্যায় পাটগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ সুমন কুমার মহন্ত যাবতীয় আনুষ্ঠিনিকতা শেষে মেয়েটিকে তার বাবার কাছে জিম্মা প্রদান করেন।

এ ঘটনায় একটি অপহরণের মামলা আদালতে বিচারধীন রয়েছে বলে জানান পাটগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ সুমন কুমার মহন্ত। বুড়িমারী স্থল বন্দর পুলিশের ইনচার্জ খন্দকার আল মাহমুদ এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close