আমাদের ওয়েবসাইট www.womeneye24.com আপডেটের কাজ চলছে। সাময়িক অসুবিধার জন্য আমরা দু:খিত
স্বাস্থ্যস্লাইড

বাংলাদেশে চীনা ভ্যাকসিনের পরীক্ষামূলক প্রয়োগ এ মাসেই

ওমেনআই ডেস্ক : চীনের সিনোভ্যাকের তৈরি ভ্যাকসিন বাংলাদেশে এ মাসেই মানবদেহে পরীক্ষামূলক প্রয়োগ করা হচ্ছে। আগামী ১০ দিনের মধ্যে এই ভ্যাকসিন পৌঁছানোর কথা রয়েছে। এই প্রক্রিয়ার সাথে যুক্ত থাকছে আইসিডিডিআরবি। টিকা প্রয়োগের মূখ্য গবেষক এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি জানান, রাজধানীর ৭টি কোভিড হাসাপাতালের ৪ হাজার ২শ’ চিকিৎসক, নার্স ও অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মী স্বেচ্ছায় এই ট্রায়ালে অংশ নিতে পারবে। সাফল্য এলে ভ্যাকসিন পাওয়ায় অগ্রাধিকার পাবে বাংলাদেশ।

চীনের টিকার পরীক্ষামূলক প্রয়োগের বিষয়টি বেশ আগে থেকেই আলোচনায় ছিল। সরকারের অনুমতি পাওয়ার পর দ্রুতই কাজটি শুরু হবে। আর পুরো কাজটি হবে আন্তর্জাতিক উদারাময় গবেষণা কেন্দ্র আইসিডিডিআরবির তত্ত্বাবধানে। এ প্রক্রিয়ায় টিকাটি কতটা নিরাপদ ও কার্যকর তার বিশ্লেষণ ও পর্যালোচনা করা হবে।

প্রথম দুই ধাপে প্রাণিদেহে ভ্যাকসিন প্রয়োগের ফলাফলের তথ্য-উপাত্তে সফলতা মেলে। এ পর্যায়ে মানবদেহে পরীক্ষামূলক প্রয়োগে সফলতার বিষয়েও আশাবাদী বিজ্ঞানীরা। চুক্তি অনুযায়ী শুধু স্বাস্থ্য কর্মীরা ট্রায়ালে অংশ নিতে পারবেন। বিজ্ঞানীরা বলছেন, গবেষণার ফল পেতে সময় লাগবে কম করে হলেও ৬ থেকে ৮ মাস।

আইসিডিডিআরবি টিকার পরীক্ষামূলক প্রয়োগের মুখ্য গবেষক ও সিনিয়র সায়েন্টিস্ট ড. কে জামান বলেন, এই ভ্যাকসিনটি ইতিপূর্বে চায়নাতে বিল ক্লিনটন স্টাডিতে প্রয়োগ হয়েছে অ্যানিমেলের উপর। তারপরে তারা ফেইস-১ স্টাডি করেছে ১৪৪ জনের উপর এবং পরবর্তীতে ৬শ’ জনের উপর ফেইস-২ স্টাডি সম্ভব হয়েছে। পরে দেখা গেছে ভ্যাকসিনটি নিরাপদ এবং এটি মানুষের দেহে প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে তোলে। আমরা আশা করি ভ্যাকসিনটা নিরাপদ হবে এবং কার্যকরী ভূমিকা গ্রহণ করবে।

ক্লিনিক্যাল ট্রয়ালে সফলতা মিললে ভ্যাকসিন প্রাপ্তিতে অগ্রাধিকারসহ প্রযুক্তি নিয়ে ভ্যাকসিন উৎপাদনে যেতে পারবে দেশের ফার্মাসিটিউক্যালস কোম্পানিগুলো।

গবেষক ও সিনিয়র সায়েন্টিস্ট ড. কে জামান বলেন, সিনোভ্যাক পরিষ্কার বলে দিয়েছে যে, বাংলাদেশের একটি লোকাল কোম্পানিকে এই প্রযুক্তি স্থানান্তর করবে যাতে তারা এই ভ্যাকসিনটা প্রডাকশন করতে পারে। পরবর্তীতে যাতে এটা সুলভ মূল্যে এ্যাভেলাভেল হয়। তারা বলছে ১০ দিনের মধ্যে ভ্যাকসিনটা বাংলাদেশে চলে আসবে। আশা করছি এ মাসের মধ্যে আমরা শুরু করতে পারবো। কেননা আসার পরে আমাদের কিছুদিন সময় লাগবে রেডি হতে।

এর আগে সিনোভ্যাক বায়োটেকের টিকার ট্রায়াল হয়েছে ব্রাজিল ও ইন্দোনেশিয়ায়। এছাড়া তুরষ্ক, সৌদি আরব ও চিলিতে পরীক্ষার প্রস্তুতি চলছে।

মা/৮/৯/১৬.০২

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close