আমাদের ওয়েবসাইট www.womeneye24.com আপডেটের কাজ চলছে। সাময়িক অসুবিধার জন্য আমরা দু:খিত
স্বাস্থ্য

‘আগামী বছরের মাঝামাঝির আগে করোনার টিকাদান কর্মসূচি নয়’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, আগামী বছরের মাঝামাঝি সময়ের আগে করোনার টিকাদান কর্মসূচি বিস্তৃত আকারে শুরু করা যাবে বলে তারা প্রত্যাশা করছেন না। এর কারণ তারা টিকার কার্যকারিতা ও নিরাপত্তার ওপর জোর দিচ্ছেন। শুক্রবার সংস্থার এক মুখপাত্র এ তথ্য জানিয়েছেন।

মুখপাত্র মার্গারেট হ্যারিস বলেন, যে কয়টি টিকা ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে এগিয়ে আছে তার একটিও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার চাওয়া অনুযায়ী অন্তত ৫০ শতাংশ কার্যকর বলে সুস্পষ্টভাবে প্রমাণিত হয়নি।

দুই মাসেরও কম সময় ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে থাকার পর আগস্টে করোনার একটি টিকার অনুমোদন দিয়েছে রাশিয়া। এর ফলে এই টিকার নিরাপত্তা ও কার্যকারিতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন পশ্চিমা বিশেষজ্ঞরা। বৃহস্পতিবার টিকা উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান পিফজার ইনকরপোরেশন জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে অক্টোবরের শেষ নাগাদ করোনার টিকা বিতরণের জন্য প্রস্তুত হয়ে যাবে। অভিযোগ উঠেছে, নভেম্বরে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগেই জনগণের সামনে করোনার টিকা হাজিরের জন্য তোড়জোর শুরু করেছে ট্রাম্প প্রশাসন। মূলত ভোটরাজনীতির অংশ হিসেবে এটি করতে চাইছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

জেনেভায় প্রেস ব্রিফিংয়ে মার্গারেট হ্যারিস বলেন, ‘আমরা বাস্তবিক অর্থে আগামী বছরের মাঝামাঝি সময়ের আগে বিস্তৃত আকারে টিকাদান প্রত্যাশা করতে পারছি না।’

টিকার ট্রায়ালের ব্যাপারে তিনি বলেন, ‘এই তিন নম্বর ধাপের অবশ্যই দীর্ঘ সময় নেওয়া প্রয়োজন, কারণ এই টিকা সত্যিকারার্থে কতটুকু সুরক্ষাদায়ক তা আমাদের দেখার প্রয়োজন। এটি কতটুকু নিরাপদ তাও আমাদের দেখা প্রয়োজন।

যে সব টিকা ট্রায়ালে রয়েছে তাদের সব তথ্য প্রদান এবং পরস্পরের সঙ্গে তুলনা করতে জানিয়ে হ্যারিস বলেন, ‘বিপুল সংখ্যক মানুষকে টিকা দেওয়া হয়েছে। আমরা যেটা জানি না তা হচ্ছে টিকা আদৌ কাজ করেছে কিনা… এই পর্যায়ে এসে আমাদের কাছে এগুলোর সার্থক কার্যকারিতা ও নিরাপত্তা আছে কিনা তার সুস্পষ্ট সংকেত আমাদের কাছে নেই।’

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close