আমাদের ওয়েবসাইট www.womeneye24.com আপডেটের কাজ চলছে। সাময়িক অসুবিধার জন্য আমরা দু:খিত
প্রযুক্তি

এপিকে ডাউনলোডের সেরা ৫ সাইট

ওমেনআই ডেস্ক : আপনি ইনস্টল করতে চান এমন একটি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ গুগল প্লে স্টোরে নাও থাকতে পারে। আর তা বিভিন্ন কারণে হতে পারে। সম্ভবত আপনার দেশে অ্যাপটি ব্লক করা রয়েছে অথবা অ্যাপটি অ্যাডাল্ট কনটেন্টের কিংবা নির্মাতা হয়তো অ্যাপটি মুছে ফেলেছে।

প্রচলিত মাধ্যমে কোনো অ্যাপ পাওয়া না গেলে, সেটি ইনস্টল করার বিকল্প উপায় রয়েছে। এজন্য আপনাকে এপিকে ফাইল ডাউনলোড করতে হবে এবং সাইডলোড হিসেবে ইনস্টল করতে পারবেন।

এপিকে ফাইল ডাউনলোডের জন্য বেশ কিছু বিশেষায়িত সাইট রয়েছে। এর মধ্যে কিছু সাইট অন্যগুলোর তুলনায় বেশি নিরাপদ।

নিরাপদ সাইট যে কারণে গুরুত্বপূর্ণ: অ্যান্ড্রয়েড প্যাকেজ বা এপিকে ফাইল হলো অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস ডিস্ট্রিবিউট এবং ইনস্টল করার প্রাথমিক উপায়। অপরিচিত কোনো প্ল্যাটফর্ম থেকে আপনার ফোনে এপিকে ফাইল ইনস্টল করলে তা মারাত্মক নিরাপত্তা ঝুঁকির কারণ হতে পারে।কেননা হ্যাকাররা এপিকে ফাইলের মধ্যে ক্ষতিকর কোড যুক্ত করে দিতে পারে যার ফলে ম্যালওয়্যার, ট্রোজানের মতো হুমকির মুখে পড়বে আপনার ডিভাইস। সুতরাং নিশ্চিত হওয়া দরকার আপনি যে সাইটটি ব্যবহার করছেন তা নির্ভরযোগ্য। এ প্রতিবেদনে এপিকে ডাউনলোডের সেরা কিছু সাইট তুলে ধরা হলো।

এপিকে মিরর
এপিকে ফাইল ডাউনলোডের অন্যতম জনপ্রিয় সাইট এপিকে মিরর (www.apkmirror.com)। সাইটটির মালিকানা এবং পরিচালনায় রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড বিষয়ক খ্যাতনামা নিউজ পোর্টাল ‘অ্যান্ড্রয়েড পুলিশ’। ব্যবহারকারীদের সুরক্ষায় এপিকে মিররের শক্তিশালী নীতিমালা রয়েছে। যেমন-

* সাইটটিকে আপলোডের আগে সকল এপিকে ফাইল যাচাই করা হয়।

* কোনো অ্যাপের নতুন ভার্সনের ক্রিপ্টোগ্রাফিক সিগনেচার পুরোনো ভার্সনের সিগনেচারের সঙ্গে মিলিয়ে দেখা হয় (একই নির্মাতার কিনা তা নিশ্চিত হওয়ার জন্য)।

* নতুন কোনো অ্যাপ প্রকৃত নির্মাতার তৈরি কিনা তার বৈধতা যাচাই করা হয়।

বৈধতা যাচাই করার সুযোগ নেই এমন কোনো এপিকে ফাইল পাবলিশ করে না এপিকে মিরর। এ কারণে সাইটটিতে মোডেড এপিকে ফাইলগুলো, পাইরেডেট অ্যাপস বা পেইড অ্যাপস আপনি পাবেন না।

এপিকে পিওর
এপিকে মিররের সবচেয়ে বড় মূলধারার প্রতিদ্বন্দ্বী বলা যেতে পারে এপিকে পিওরকে (https://apkpure.com)। সাইট দুটি প্রায় একই সময়ে চালু হয়েছিল। আপনার ডাউনলোড করা সকল এপিকে ফাইলগুলো যেন নিরাপদ এবং ভাইরাসমুক্ত হয়, তা নিশ্চিত করার জন্য এপিকে মিররের মতো এই প্ল্যাটফর্মটিরও মতো কঠোর নীতিমালা রয়েছে।

কোনো অ্যাপ্লিকেশনের নিরাপত্তা বা উৎস নিয়ে সন্দেহ হলে তা প্রকাশ করে না এপিকে পিওর। আপনি যদি কোনো অ্যাপের পুরোনো সংস্করণ (ফিচার বা বাগের কারণে) ব্যবহার করতে চান, তাহলে সেই তালিকাও রয়েছে সাইটটিতে। এছাড়া এপিকে পিওর-এর অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ রয়েছে। সাইডলোড করার মাধ্যমে আপনি অ্যাপটি ফোনে ইনস্টল করতে পারবেন। তবে ইনস্টল করার পর এটি গুগল প্লে স্টোরের রিপ্লেসমেন্ট হিসেব কাজ করতে পারে।

এপিকে স্টোর
এপিকে মিরর অথবা এপিকে পিওর আপনার প্রত্যাশা পুরোপুরি পূরণে সক্ষম। তাই অন্য আর কোনো প্ল্যাটফর্মের প্রয়োজন নাও হতে পারে। তারপরও আপনার কাছে যথোপযুক্ত মনে না হলে, আরো কিছু বিকল্প অপশন এখানে তুলে ধরা হলো।

এক্ষেত্রে প্রথমেই রয়েছে এপিকে স্টোর (https://apk-dl.com)। এর অ্যাপটি আগে এপিকে ডাউনলোডার নামে পরিচিত ছিল। এপিকে স্টোরে বিদ্যমান এপিকে ফাইলগুলো গুগল প্লে স্টোর থেকে নেওয়া হয়েছে, যেন আপনি নিরাপত্তা বিষয়ে আশ্বস্ত হতে পারেন। তবে অন্যান্য সাইটের মতো এই প্ল্যাটফর্মেও প্রচুর পরিমাণে মেটাডেটা রয়েছে, ফলে আপনি চাইলে গুগল প্লে স্টোরকে পুরোপুরি উপেক্ষা করতে পারেন।

অ্যাপটোইড
এপিকে ডাউনলোডের জগতে আরেক জায়ান্ট হলো অ্যাপটোইড (https://en.aptoide.com)। এই প্ল্যাটফর্মের ব্যবহারকারী সংখ্যা ২০০ মিলিয়নের বেশি। এই সাইটটিরও অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ভার্সন রয়েছে, যা আপনার ফোনে এপিকে ফাইলগুলো সরাসরি ডাউনলোড করার সুবিধা দেবে। ব্লকচেইন এবং ক্রিপ্টোকারেন্সি প্রযুক্তি গ্রহণে এটি প্রথম দিককার একটি সাইট। প্ল্যাটফর্মটির টোকেন ‘অ্যাপ কয়েন্স’ নামে পরিচিত, যা অ্যাপ নির্মাতাদের রেভিনিউ শেয়ার করার করার সুবিধা দেয় অন্যান্য ব্যবহারকারীদের সঙ্গে।

কিন্তু এই সাইটটি কেন তালিকার প্রথম দিকে নেই? এর উত্তর হলো, এটি ব্যবহারকারীদেরকে নিজস্ব স্টোর পরিচালনা করার সুবিধা দেয়, যা প্লাটফর্মটিতে মোডেড এপিকে রাখার সুযোগ তৈরি করে। ঝুকিঁপূর্ণ কোনো এপিকে বোঝার যদিও যথেষ্ট সংকেত রয়েছে কিন্তু আপনি মনোযোগ না দিলে দুর্ঘটনাক্রমে ডাউনলোড করার ঝুঁকি থাকে।

ইয়াল্প স্টোর
ইয়াল্প স্টোরের কোনো ওয়েব সংস্করণ নেই। এই অ্যাপ ইনস্টল করা যাবে এফ-ড্রয়েড (https://f-droid.org/packages/com.github.yeriomin.yalpstore) থেকে। অ্যাপটি আপনার অ্যান্ড্রয়েড ফোনে ইনস্টল করার পর গুগল প্লে স্টোর থেকে সরাসরি এপিকে ফাইলগুলো ডাউনলোড করা যাবে। যার মানে হলো, কোনো মধ্যস্থ পক্ষের মাধ্যমে এপিকে ফাইলে ম্যালওয়্যার যুক্ত করা নিয়ে উদ্বিগ্ন হওয়া লাগবে না।

আপনার ডিভাইসটি যদি রুট করা থাকে, তাহলে ইয়াল্প স্টোর আপনার কোনো ইনপুট ছাড়াই ব্যাকগ্রাউন্ডে অ্যাপ্লিকেশন আপডেট করতে পারে। এছাড়া গুগল প্লে স্টোর থেকে এপিকে ডাউনলোড করার জন্য আপনার কোনো গুগল অ্যাকাউন্ট থাকা লাগবে না। যারা গুগলের প্রাইভেসি পলিসি নিয়ে অসন্তুষ্ট তাদের জন্য এ বিষয়টি সন্তুষ্টির কারণ হতে পারে।

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close