আমাদের ওয়েবসাইট www.womeneye24.com আপডেটের কাজ চলছে। সাময়িক অসুবিধার জন্য আমরা দু:খিত
জাতীয়

বঙ্গবন্ধুর ছবি জাতীয় সংসদের অধিবেশন কক্ষে প্রদর্শনের নির্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক : জাতীয় সংসদের অধিবেশন কক্ষে স্পিকারের চেয়ারের পেছনের দেয়ালে গুরুত্বপূর্ণ স্থানে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতি সংরণ ও প্রদর্শনের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

এক রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে আজ মঙ্গলবার হাইকোর্টের বিচারপতি তারিক উল হাকিম ও বিচারপতি এসএম কুদ্দুস জামানের ভার্চুয়াল বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন রিটকারী আইনজীবী সুবীর নন্দী দাস। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত দাসগুপ্ত।

আদেশের পরে অমিত দাসগুপ্ত বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর ছবি সংসদের অধিবেশন কক্ষে স্পিকারের চেয়ারের পেছনের দেয়ালের গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় স্থাপনের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। আদেশ পালন করে আগামী এক মাসের মধ্যে সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেলের কার্যালয়ের মাধ্যমে প্রতিবেদন দাখিল করতে হবে।’

আইনজীবী সুবীর নন্দী দাস আদালতের বরাত দিয়ে সাংবাদিকদের জানান, শুনানিকালে আদালত বলেন, এটা সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতার বিষয়। সংসদ সচিবালয়ের সচিব এই আদেশ বাস্তবায়ন করবেন।

এর আগে গত ১২ আগস্ট সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সুবীর নন্দী দাস হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এ রিট করেন। গত ৩০ জুলাই জাতীয় সংসদ সচিবালয়ে একটি আবেদন দেন সুবীর নন্দী দাস। ওই আবেদনে বলা হয়, সংবিধানের ৪ক বিধান মতে, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতি রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, স্পিকার ও প্রধান বিচারপতির কার্যালয় এবং সব সরকারি আধা-সরকারি অফিস, স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান, সংবিধিবদ্ধ সরকারি কর্তৃপরে প্রধান ও শাখা কার্যালয়, সরকারি-বেসরকারি শিাপ্রতিষ্ঠান, বিদেশে অবস্থিত বাংলাদেশের দূতাবাস ও মিশনগুসমূহে সংরণ ও প্রদর্শন বাধ্যবাধকতা রয়েছে। জাতীয় সংসদের অধিবেশন হলে স্পিকার এবং সংসদ সদস্যদের আইন প্রণয়ন অফিস, রাষ্ট্র ও সরকারের অত্যন্ত পবিত্র ও গুরুত্বপূর্ণ স্থান। জাতীয় সংসদে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতি প্রদর্শন ও সংরণ সাংবিধানিক দায়িত্ব। অতএব বিনীত নিবেদন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতি জাতীয় সংসদের অধিবেশন কক্ষে সংরক্ষণ ও প্রদর্শনের ব্যবস্থা গ্রহণে আপনার সদয় মর্জি কামনা করছি। এই আবেদনের পর কোনো সাড়া না পেয়ে তিনি হাইকোর্টে রিট করেন। রিটে ৩০ জুলাইয়ের আবেদন নিষ্পত্তি করতে নির্দেশনা চাওয়া হয়।

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close