আমাদের ওয়েবসাইট www.womeneye24.com আপডেটের কাজ চলছে। সাময়িক অসুবিধার জন্য আমরা দু:খিত
নারী নির্যাতন

ধর্ষণ ও গৃহবধূর খুনের ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি

মহিলা পরিষদের বিবৃতি

ওমেনআই প্রতিবেদক : বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ  কুড়িগ্রামে কিশোরী ধর্ষণ, বরিশালে ছাত্রীকে ধর্ষণ এবং রাজধানীর দক্ষিণখান ফায়দাবাদ এলাকার একটি বাসা থেকে এক গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধারে গভীর উদ্বেগ ও তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছে। ঘটনাগুলোর সুষ্ঠু তদন্ত করে দোষীদের বিচারের দাবি জানিয়েছে।

মহিলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ডা. ফওজিয়া মোসলেম ও সাধারণ সম্পাদক মালেকা বানু এক বিবৃতিতে বলেছেন, গত ১২ আগস্ট কুড়িগ্রামের নাগশ্বেরী উপজলোর বল্লভরেখাস ইউনিয়নের চর কৃষ্ণপুর গ্রামে দুই বখাটে যুবক র্কতৃক দুই কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। গত ১০ আগস্ট সোমবার বিকেলে ওই কিশোরী দুই বান্ধবি গ্রামের ওপারে তাদের ফুফু ও নানার বাড়িতে বেড়াতে যায়। সেখান থেকে দুপুরে ফিরবার পথে নির্জন স্থানে আগে থেকে ওঁত পেতে থাকা ওই দুই যুবক তাদের মুখে কাপড় গুঁজে র্পাশ্বর্বতী পাট ক্ষেতের ভেতর টেনে নিয়ে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় প্রতিবেশীরা তাদের উদ্ধার করে বাড়িতে পৌঁছে দেয়।
ওই একইদিনে বরিশালে জিনের আছর ছাড়ানোর নামে মা কবিরাজ শংকর দেবণাথের কাছে নিলে মেয়েকে জিনে ধরেছে এমন কথায় তার বাসায় রেখে যেতে বলে এবং ওই রাতে চিকিৎসার নামে জোড়পূর্বক ছাত্রীকে ধর্ষণ করে।
গত ১৪ আগস্ট রাজধানীর দক্ষিণখান ফায়দাবাদ এলাকার একটি বাসা থেকে এক গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। জানা যায় ৫ থেকে ৬ মাস আগে প্রেমের সম্পর্কে বিয়ে করে ওই গৃহবধূ ও ওর্য়াকশপ র্কমচারী আওলাদ হোসনে শান্ত। শুক্রবার ফায়দাবাদ গণকবরের পশ্চিম পাশে বাচ্চু মিয়ার বাড়ি থেকে ওই গৃহবধূর মরদহেটি উদ্ধার করে পুলিশ এবং লাশ ময়নাতদন্তরে জন্য শহীদ সোহরাওযর্দী মেডিক্যাল কলেজে অ্যান্ড হাসপাতাল র্মগে পাঠানো হয়েছে।
বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ উক্ত তিনটি ঘটনায় গভীর উদ্বেগ ও তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে ঘটনার সাথে জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তার এবং তদন্ত সাপেক্ষে ঘটনার সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জোর দাবি জানাচ্ছে। একইসাথে তারা ধর্ষণ, গৃহবধূর মৃত্যুর রহস্য উদ্ঘাটন ও মানুষের সাথে প্রতারণাসহ নানা ধরণের ক্ষতি ঘটনা প্রতিরোধে প্রচলিত কুসংস্কারের বিরুদ্ধে জনসচতেনতা সৃষ্টি ও সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানাচ্ছে।

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close