আমাদের ওয়েবসাইট www.womeneye24.com আপডেটের কাজ চলছে। সাময়িক অসুবিধার জন্য আমরা দু:খিত
জাতীয়

দেশকে নেতৃত্বশূন্য করতেই বঙ্গবন্ধু হত্যা : দীপু মনি

ওমেনআই ডেস্ক : আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, ১৯৭৫ সালে ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার মাধ্যমে ৭১-এর মুক্তিযুদ্ধে পরাজিত শত্রুরা দেশকে নেতৃত্বশূন্য করতে চেয়েছিল।

আজ শনিবার সকালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫ তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ কৃষক লীগের উদ্যোগে ১৯ বঙ্গবন্ধু এভিনিউ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে “স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচী” অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য তিনি এ মন্তব্য করেছেন।

তিনি বলেন, ৩ নভেম্বর জাতীয় ৪ নেতাকে হত্যা করেছিল। এমনকি ২০০৪ সালে ২১ আগস্ট বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে বঙ্গবন্ধু এভিনিউ এ ১৩ টি গ্রেনেড হামলা করে ২৪ জন নেতাকর্মীকে হত্যা করেছিল। এসবই করা হয়েছিল দেশকে অন্ধকারাচ্ছন্ন করে ফায়দা লুটার জন্য।

প্রধান অতিথি ডা. দীপু মনি তার বক্তব্যের শুরুতে বঙ্গবন্ধুর প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন এবং ১৫ আগস্টে ঘাতকের গুলিতে নিহত সকল শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, কৃষক লীগ করোনাকালেও কৃষকের ধান কেটে গোলায় তুলে দিয়ে মানবতার স্বাক্ষর রেখেছে। এছাড়াও সারাদেশে বৃক্ষরোপণের মতো একটি যুগান্তকারী কর্মসূচী পরিচালিত করায় তিনি সংগঠনের নেতৃবৃন্দকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা ১৯৮১ সালে যখন দেশে ফিরে আসেন। তখন তার সুযোগ্য নেতৃত্বে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগসহ ঘুরে দাঁড়িয়েছিলেন নেতাকর্মীরা। আজকে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে কৃষিতে বিপ্লব সাধিত হয়েছে এবং দেশ আজকে খাদ্যে সয়ংসম্পূর্ণত হয়েছে। দেশ খাদ্যে সয়ংসম্পূর্ণ হওয়ার পিছনে কৃষক লীগের ব্যাপক অবদান রয়েছে। এজন্য তিনি কৃষক লীগকে ধন্যবাদ জানান। আমাদের উন্নয়নের মূল ম্যাজিক জননেত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্ব।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্যে কৃষক লীগের সভাপতি কৃষিবিদ সমীর চন্দ বলেন, ৭১ এর পরাজিত শক্তিরা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেই ক্ষান্ত হয় নাই। তারা বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য উত্তরসূরি কৃষকরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ২১ বার হত্যার প্রচেষ্টা চালিয়েছে। কৃষক লীগের নেতাকর্মীদের তিনি সজাগ দৃষ্টি রেখে নেত্রীর নিরাপত্তা ও কৃষক সমাজের উৎপাদনের সহযাত্রী হিসাবে একসাথে কাজ করার পরামর্শ দেন।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ কৃষক লীগের সভাপতি আব্দুস সালাম বাবু’র সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক হাজী আব্দুল রব খান দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভা পরিচালনা করেন। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন শেখ জাহাঙ্গীর আলম, আকবর আলী চৌধুরী, এম.এ ওয়াদুদ মিয়া, কৃষিবিদ ড. নজরুল ইসলাম, কৃষিবিদ বিশ্বনাথ সরকার বিটু, মোঃ আবুল হোসেন, আলহাজ্ব মোস্তফা কামাল চৌধুরী, গাজী জসিম উদ্দিন, নাজমুল ইসলাম পানু, রুমানা আলী টুসি এমপি, সৈয়দ সাগিরুজ্জামান শাকীক, হিজবুল বাহার রানা, রেজাউল করিম রেজা, ডা. মজিবুর রহমান মিয়াজী, কৃষ্ণ গোপাল আলমগীর হোসেন, মহানগর দক্ষিণ কৃষক লীগের আহসান উল হক পলাশ, জহিরুল ইসলাম, মনির হোসেন জিন্নাহ, নজরুল ইসলাম বাচ্চু, এম.এ মান্নান, আসলাম ভূইয়া নগর নেতৃবৃন্দ প্রমুখ।

পরে ১৫ আগস্টের হত্যাকাণ্ডে শাহাদাতবরণকারী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সহ সকল শহীদদের রূহের মাগফিরাত কামনা করে দোয়া ও মোনাজাত শেষে তবারক বিতরণ করা হয়। দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করেন মাওলানা ইব্রাহিম।

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close