আমাদের ওয়েবসাইট www.womeneye24.com আপডেটের কাজ চলছে। সাময়িক অসুবিধার জন্য আমরা দু:খিত
নারী নির্যাতন

ধর্ষণ ও উত্ত্যক্তের ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি মহিলা পরিষদের

ওমেনআই প্রতিবেদক : বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ এক বিবৃতিতে বগুড়ার আদমদীঘিতে বখাটে কর্তৃক স্কুলছাত্রীকে উত্ত্যক্তকরণ ও মারধর এবং রাজধানীর মিরপুরের শাহ-আলীতে চলন্ত বাসে কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনায় গভীর উদ্বেগ ও তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছে। ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে দোষীদের বিচারের দাবি জানিয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার (৬আগস্ট) মহিলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ডা. ফওজিয়া মোসলেম ও সাধারণ সম্পাদক মালেকা বানু এক বিবৃতিতে বলেছেন,গত মঙ্গলবার বগুড়ার আদমদীঘিতে এক স্কুলছাত্রী সপরিবারে অটোরিকশাযোগে সান্তাহার যাওয়ার পথে ইভটিজিংয়ের শিকার হয়। এসময় অটোরিকশায় থাকা তার ভাইয়েরা প্রতিবাদ করলে ওই স্কুলছাত্রীসহ আটজনকে মারপিট করে আহত করেছে বখাটেরা। স্থানীয়রা আহত আটজনকে উদ্ধার করে আদমদীঘি হাসপাতালে ভর্তি করান। গত বুধবার রাতে স্কুলছাত্রীর মা বাদী হয়ে উপজেলার ইন্দইলের মাসুদের ছেলে সিয়াম (২৮), মমতাজের ছেলে কামরুল (২৫), শাকিলের ছেলে শান্ত(২৪), মুকুলের ছেলে রহমান (২২), সালামের ছেলে রাকিব (২৩), রুবেলের ছেলে রাহিবুল (১৯), মজনুর ছেলে কবির (১৮) ও রিফাতকে (২০) আসামি করে মামলা দায়ের করেন।

এদিকে ওইদিন এক কিশোরী ঢাকার আব্দুল্লাপুর থেকে চিড়িয়াখানা রোডে চলাচল করা শতাব্দী পরিবহনের বাসে ওঠে আমিনবাজারে আত্মীয়ের বাসায় যাওয়ার সময় কিশোরীকে উল্টোপাল্টা বুঝিয়ে বাস থেকে নামতে দেয়নি চালক ও হেলপার। এমনকি সব যাত্রী নেমে যাওয়ার পর চিড়িয়াখানা রোডে চলন্ত বাসে রাফি ও বিদ্বান পালা করে তাকে ধর্ষণ করে। একপর্যায়ে মিরপুর-১ নম্বরের চাইনিজ রেস্টুরেন্ট এলাকায় তাকে ফেলে পালায় ধর্ষকরা। অচেতন কিশোরীকে পড়ে থাকতে দেখে এলাকার লোকজন জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ নম্বরে ফোন করলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তাকে উদ্ধার করে।

বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ উক্ত দুটি ঘটনায় গভীর উদ্বেগ ও তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে ঘটনার সাথে জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তার এবং তদন্ত সাপেক্ষে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জোর দাবি জানায়। একইসাথে তারা ধর্ষণ, গণধর্ষণ, যৌনহয়রানি এবং নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনা প্রতিরোধে সকল সামাজিক শক্তিকে এগিয়ে আসার জন্য আহ্বান জানায়।

সামি/৬/৮/২১.০৯

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close